মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সেবার তালিকা

 

নতুন সংযোগ গ্রহণ

 অনলাইনে (www.dhakapbs1.org.bd) আবেদন পত্র যথাযথ ভাবে পুরণ করে নির্ধারিত আবেদন ফি ক্যাশ শাখায় জমা প্রদান করে রসিদ সংগ্রহ করতে হবে।

 ডিমান্ড নোটের অর্থ পরিশোধ ও ওয়ারিং সম্পন্ন করা হলে সংযোগ প্রদান করা হবে।

 পরবর্তী মাসের বিলিং সাইকেল অনুযায়ী গ্রাহকের প্রথম মাসের বিল জারী করা হবে।

 “এক অবস্থানের সেবা” থেকে নতুন সংযোগ গ্রহনের নিয়মাবলী জানা যাবে।

 

বিল সংক্রান্ত অভিযোগ

বিল সংক্রান্ত যে কোন অভিযোগ যেমন-চলতি মাসের বিল পাওয়া যায়নি, বকেয়া বিল, অতিরিক্ত বিল ইত্যাদির জন্য “এক অবস্থানে সেবা কেন্দ্র” এ যোগাযোগ করলে তাৎক্ষণিক সমাধান সম্ভব হলে তা নিষ্পত্তি করা হবে। অন্যথায় একটি নিবন্ধন নম্বর দিয়ে পরবর্তী যোগাযোগের সময় জানিয়ে দেয়া হবে এবং পরবর্তী ৭(সাত) দিনের মধ্যে নিষ্পত্তির ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

বিল পরিশোধ

 এক অবস্থানের সেবা কেন্দ্র সংলগ্ন ব্যাংক বুথ/নির্ধারিত ব্যাংক -এ গ্রাহক  বিল পরিশোধ করতে পারবেন।

 প্রি-পেমেন্ট মিটারিং এর আওতাভূক্ত এলাকায় ভেন্ডিং সেন্টার  এ গিয়ে Card/key No-সহ স্লিপ সংগ্রহের মাধ্যমে  আগাম বিল পরিশোধ (Recharge) করা যাবে।

 ইলেকট্রনিক বিল পে-এর আওতাভূক্ত এলাকায় Point of Sale (POS) এর মাধ্যমে বিল পরিশোধ করা যাবে।

 ইউনিয়ন তথ্য সেবা কেন্দ্র ও টেলিটকের ম্যাধমে বিল পরিশোধ করা যাবে।

 

বিদ্যুৎ বিভ্রাটের অভিযোগ

বিদ্যুৎ সরবরাহ ইউনিটের নির্দিষ্ট “অভিযোগ কেন্দ্র” অথবা “গ্রাহক সেবা কেন্দ্র” এ আপনার বিদ্যুৎ বিভ্রাটের অভিযোগ জানানো হলে আপনাকে অভিযোগ নম্বর ও নিষ্পত্তির সময় জানিয়ে দেয়া হবে। অভিযোগ নম্বরের ক্রমানুসারে আপনার বিদ্যুৎ বিভ্রাট দূরীভূত করার লক্ষ্যে ২৪ ঘন্টার মধ্যে নিষ্পত্তির ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোন কোন ক্ষেত্রে নির্ধারিত সময়ে বিদ্যুৎ বিভ্রাট দূরীভূত করা সম্ভব না হয়, তার কারণ গ্রাহককে অবহিত করা হবে।

 

অস্থায়ী বিদ্যুৎ সংযোগ

মেলা, আনন্দ মেলা, নির্মানাধীন সাইট যেমন-রাস্তা, ব্রিজ ইত্যাদিতে অস্থায়ী সংযোগ দেওয়া যাবে। যাহা কখনই স্থায়ী সংযোগ হিসাবে রূপান্তর করা যাবে না। অস্থায়ী সংযোগের আবেদন ফি ৫০০/- টাকা। এই সংযোগের জন্য প্রয়োজনীয় সকল মালামালের মূল্য ১১০% গ্রহণ করা হয় এবং সংযোগ বিচ্ছিন্ন শেষে ব্যবহারযোগ্য মালামালের ১০০% মূল্য ফেরত প্রদান করা হয়। ব্যবহৃত বিদ্যুতের মূল্য হার এলটি-টি রেটে করা হয়।

 

গ্রাহকের নাম পরিবর্তন পদ্ধতি

গ্রাহক ক্রয়মূল্য/ওয়ারিশসূত্রে/লিজসূত্রে জায়গা বা প্রতিষ্ঠানের মালিক হলে সকল দলিলের সত্যায়িত ফটোকপি ও সর্বশেষ পরিশোধিত বিলের কপিসহ নির্ধারিত ফি নির্দিষ্ট দপ্তরে জমা করে আবেদন করতে হবে। সরেজমিনে তদন্ত করে নাম পবিবর্তনের জন্য বিদ্যমান হারে জামানত প্রদান করতে হবে। নতুন নামে চুক্তিপত্র সম্পাদন এবং সদস্য হতে হবে। নতুন গ্রাহকের ২ কপি সত্যায়িত ছবি জমা দিতে হবে।

 

 

ছবি


সংযুক্তি



Share with :

Facebook Twitter